শনিবার ১২ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

শার্শায় রাস্তায় ধান রোপন করে পাঁকা করনের প্রতিবাদ

  |   বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন ২০২০

শার্শায় রাস্তায় ধান রোপন করে পাঁকা করনের প্রতিবাদ

মাসুদুর রহমান শেখ বেনাপোলঃযশোরের শার্শার কায়বা ইউনিয়নের রুদ্রপুর বিলপাড়ার একটি কাঁচা রাস্তা পাঁকা করনের দাবিতে গ্রামবাসী রাস্তার উপর ধান রোপন করে প্রতিবাদ জানিয়েছে।

রুুদ্রপুর গ্রামের বিলপাড়ায় রাস্তাটি একটু বৃষ্টি হলে কাঁদাতে মানুষ হাটতে পারে না। রাস্তার উপর পানি জমে যায়। প্রতিবছর এ বর্ষা মৌসুমে পানি জমে যাওয়ায় স্কুলের ছেলে মেয়েরা স্কুলে যেতে পারে না। গ্রামের লোক পাকা সড়কের উপর উঠতে পারে না। হাটে বাজারে তাদের উৎপাদিত ফসল উঠাতে পারে না। হাটবাজার থেকে গ্রামবাসিদের কাঁদা পায়ে ঘরে উঠতে হয়। দুর্বিসহ জীবন যাপন কাটাতে হয় বছরের অর্ধেক সময়। দীর্ঘদিন ধরে তাদের দাবি দাওয়া স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বার মেনে না নেওয়ায় গ্রাম বাসি ফুঁসে উঠেছে। তারা গ্রামের এই কাঁচা রাস্তাটিতে ধান রোপন করে পাকা করনের জন্য অভিনব প্রতিবাদ জানিয়েছে।

স্থানীয় আয়ুব হোসেন বলেন রুদ্রপুর বিল পাড়ার মানুষ এই যুগে এসেও মনে হয় এখনও ১০০ বছর পিছিয়ে আছে। তারা বাড়ি থেকে বর্ষা মৌসুমে বের হতে পারে না। এক দুর্বিসহ জীবন যাপন অতিবাহিত করে গ্রামের এই সাধারন মানুষ। গ্রামের লোকজনের ডিজিটাল এই যুগে রাস্তাটি পাকার হওয়ার খুব প্রয়োজন। এখানে শুধু নেতা কর্মীরা ভোটের সময় পাড়া দেয়। এরপর আর এসব মৌসুমী নেতাদের দেখা যায় না।
এ ব্যাপারে কায়বা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাসান ফিরোজ টিংকুকে কয়েকবার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নাই।

webnewsdesign.com
Facebook Comments Box
advertisement

Posted ২:১৬ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন ২০২০

দৈনিক প্রথম দৃষ্টি |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
প্রকাশক
মাসুদ করিম সিদ্দিকী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মিজানুর রহমান সিদ্দিকী রঞ্জু
সম্পাদক
এস কে দোয়েল
প্রধান প্রতিবেদক
আব্দুল্লাহ আল মাহাদী
অফিস ব্যবস্থাপনা
নিসা আলী
সম্পাদকীয় কার্যালয়
৫/সি, আফতাবনগর মেইন রোড, রামপুরা, ঢাকা।
আঞ্চলিক প্রধান কার্যালয়
চৌরাস্তা বাজার, তেঁতুলিয়া, পঞ্চগড়
ফোন
+৮৮০১৭৫০-১৪০৯১৯ (সম্পাদক)
+৮৮০১৭১৮-৭৭২৭৪৯ (বার্তা-সম্পাদক)
Email
prothomdristy@gmail.com