শনিবার ১২ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সঙ্কটে  রয়েছেন আদমদিঘীর ক্ষুদ্র ঋণ সমবায় সমিতি প্রতিষ্ঠানগুলো

  |   রবিবার, ০৩ মে ২০২০

সঙ্কটে  রয়েছেন আদমদিঘীর ক্ষুদ্র ঋণ সমবায় সমিতি প্রতিষ্ঠানগুলো

রাকিবুল হাসান,আদমদিঘী,বগুড়া :


বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রভাবে চরম আর্থিক সঙ্কটে পড়েছে বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার ক্ষুদ্র ঋণ দাতা সমবায় সমিতি প্রতিষ্ঠানগুলো। দীর্ঘদিন ধরে করোনা প্রভাবে সাধারণ ছুটির জন্য এ সব প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত ঋণ আদায় ও সঞ্চয় কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে বেকার হয়ে পড়েছে সমবায়ী সমিতির প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে সরাসরি জড়িত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। অস্তিত্ব রক্ষার্থে এনজিও ঋণের মতো সমবায়ী প্রতিষ্ঠানগুলোকে প্রণোদনার অর্থ বরাদ্দের দাবি জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। জানা গেছে, করোনা ভাইরাসে বিশ্বের মতো আমাদের দেশেও মহাসঙ্কটে পড়ে গেছে। বর্তমানে বিভিন্ন এনজিও প্রতিষ্ঠানগুলোতে আর্থিক সঙ্কট শুরু হয়েছে। সামনে খাদ্য সঙ্কটে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তোরণের জন্য সমবায়ী সমিতির মত প্রতিষ্ঠানগুলোকে সচল রাখতে হবে। একই সাথে এনজিওদের মতো সরাসরি ঋণ কার্যক্রমের সাথে জড়িত দেশের সব সমবায় সমিতি প্রতিষ্ঠানগুলোকে প্রণোদনার ব্যবস্থা করতে হবে দাবি সংশ্লিষ্টদের। কারণ, চলমান পরিস্থিতিতে যারা ঋণ নিয়েছেন, কিন্তু আয় বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা সে ঋণ পরিশোধ করতে পারছে না। আর এ সব প্রতিষ্ঠানে যারা সঞ্চয় রেখেছিলেন তারা অর্থ ফেরত পাচ্ছে না। এ জন্য সমবায় মন্ত্রণালয়সহ সমবায় অধিদফতর কে এগিয়ে আসতে হবে বলে মনে করছেন তারা।

সমবায় সমিতির কর্মকর্তারা জানান, সমবায় অধিদফতর থেকে নিবন্ধিত সমবায়গুলো তাদের সমিতির সদস্যদের কাছ থেকে সঞ্চয় ও আমানত নেয়, আবার সমিতির সদস্যদের মধ্যেই ঋণ কার্যক্রম পরিচালিত হয়। সঞ্চয় গ্রহন ও ঋণ কার্যক্রম, ব্যাংকে এফডিআর সব মিলে বছর শেষে যে পরিমাণ মুনাফা হয় তা সমিতির সদস্যদের মধ্যে আনুপাতিকহারে বিতরণ করা হয়। কিন্তু দেশব্যাপী সাধারণ ছুটি ও লকডাউনের কারণে প্রতিষ্ঠাগুলোর কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে দীর্ঘ দেড় মাসে সরকারি নির্দেশে প্রায় সব ধরনের অফিস বন্ধ রয়েছে। অধিকাংশ জেলা লকডাউন করা হয়েছে। এতে সমবায় সমিতি প্রতিষ্ঠাগুলোর নিয়মিত ঋণ কার্যক্রমসহ সব আর্থিক কার্যক্রম বন্ধ আছে। ফলে প্রতিষ্ঠানগুলো আর্থিক সঙ্কটের মুখে পড়েছে।

এ বিষয়ে সান্তাহার নাগরিক কমিটির অন্যতম নেতা রবিউল ইসলাম রবিন বলেন, দেশের বেশির ভাগ এলাকায় লকডাউন ও সাধারণ ছুটির মধ্যে সমবায় সমিতি লিমিটেড প্রতিষ্ঠানগুলো কোনো কাজ করতে পারছে না। এতে সমবায়ী সমিতি প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে যারা জড়িত আছেন তারা বেকার হয়ে পড়েছেন। এই পরিস্থিতিতে সমবায় সমিতি প্রতিষ্ঠাগুলোকে সচল রাখতে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় আনতে হবে।

webnewsdesign.com
Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৩:৪৬ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৩ মে ২০২০

দৈনিক প্রথম দৃষ্টি |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
প্রকাশক
মাসুদ করিম সিদ্দিকী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মিজানুর রহমান সিদ্দিকী রঞ্জু
সম্পাদক
এস কে দোয়েল
প্রধান প্রতিবেদক
আব্দুল্লাহ আল মাহাদী
অফিস ব্যবস্থাপনা
নিসা আলী
সম্পাদকীয় কার্যালয়
৫/সি, আফতাবনগর মেইন রোড, রামপুরা, ঢাকা।
আঞ্চলিক প্রধান কার্যালয়
চৌরাস্তা বাজার, তেঁতুলিয়া, পঞ্চগড়
ফোন
+৮৮০১৭৫০-১৪০৯১৯ (সম্পাদক)
+৮৮০১৭১৮-৭৭২৭৪৯ (বার্তা-সম্পাদক)
Email
prothomdristy@gmail.com